অন্ধকার পতেঙ্গা সৈকতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন দর্শনার্থীরা - Coxsbazarkontho.com | Newspaper

বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বুধবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০১৯-০৯-২০ ০০:২০:৩৭

অন্ধকার পতেঙ্গা সৈকতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন দর্শনার্থীরা

চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের অন্যতম আকর্ষণ পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত। প্রায় সাড়ে ৫ কিলোমিটার জায়গাজুড়ে রাতের বেলায় দর্শনার্থীরা সমুদ্র পাড়ে অবস্থান করে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করে থাকেন। তবে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা না থাকায় রাত হলেই দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত এবং পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এছাড়া এ অন্ধকারের কারণে বিভিন্ন ঘটনার শিকার হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন দর্শনার্থী। পাশাপাশি তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
দর্শণার্থীরা জানান, আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এতে করে রাতের বেলায় সৈকতে আসতে নানবিধি সমস্যায় হিমশিম খেতে image হয়। তারা আরও জানান, দর্শণার্থীদের চলাচল এলাকায় মূল পয়েন্টে একসারি সৌরচালিত বাতির মাধ্যমে আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেকাংশ।
জানা যায়, চট্টগ্রাম মহানগরীর যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য ‘চট্টগ্রাম সিটি আউটার রিং রোড’ প্রকল্প গ্রহণ করেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। এ প্রকল্পের আওতায় পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করায় সৈকতের নান্দনিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করার জন্য যেমন আগের তুলনায় দর্শণার্থী বেড়েছে তেমনি প্রশংসাও কুড়িয়েছিল (সিডিএ)। তবে এবার দর্শণার্থীদের মুখ থেকে শুনা যাচ্ছে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন, ময়লা আবর্জনায় ভরপুর, নিরাপত্তা বিঘ্নিত, পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে এবং ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগ।
আরো জানা যায়, পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত এলাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর আগমণ উপলক্ষে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিদ্যুৎলাইন সংযুক্ত করা হয়। বিদ্যুৎলাইন সংযুক্ত করার পর থেকে বিল বকেয়া থাকায় চলতি আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।
পতেঙ্গা থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর কোনো দর্শণার্থী থেকে ঘটনার দায়ে লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। তবে অনেক দর্শণার্থী আমাদের কন্ট্রোল রুমে জানিয়েছেন যে বিদ্যুৎলাইন ঠিক না থাকায় বিভিন্ন সমস্যা হচ্ছে। নিরাপত্তার ভয়ভীতি বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সিএমপির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে সিডিএ’কে একটি চিঠি পাঠিয়েছি। যাতে বিদ্যুৎ সংযোগ জটিলতা সমাধান করেন। দর্শণার্থীদের নিরপত্তার নিশ্চিত করতে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে রোববার (১৮ আগস্ট) থেকে বাড়তি ফোর্সও মোতায়ন করা হয়েছে।
এ বিষয়ে সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ বলেন, আমি সিডিএ চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করার আগেই প্রধানমন্ত্রীর আগমণ উপলক্ষে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিদ্যুৎলাইন সংযুক্ত করা হয়। তখনও সিডিএ থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার কথা ছিল না এবং বিদ্যুৎ বিভাগেও এমন কোনো চিঠি পাঠানো হয়নি।
বকেয়া বিলের কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা নিজেই এসব বাতি লাগিয়েছে। আর এসব বাতি লাগানোর জন্য আমাদের খাতে কোনো বরাদ্দও নেই। তারপরও আমি এ বিষয়টি দেখছি।

আরো সংবাদ

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার
অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১