কক্সবাজারে বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের লুট করা সাড়ে ৫৬ লাখ টাকা উদ্ধার - কক্সবাজার কন্ঠ

বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-১১-২০ ১৩:৫০:৪৬

কক্সবাজারে বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের লুট করা সাড়ে ৫৬ লাখ টাকা উদ্ধার

কক্সবাজারে বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের লুট করা সাড়ে ৫৬ লাখ টাকা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক :  কক্সবাজারে বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটর এনএফ এন্টারপ্রাইজের ৬০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যাওয়া কর্মচারি মোহাম্মদ ইসমাঈলসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে সাড়ে ৫৬ লাখ টাকা। ঘটনার মাস্টারমাইন্ড মোহাম্মদ ইসমাইল কক্সবাজার পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত ফকির মোহাম্মদের ছেলে। তিনি ফজল মার্কেটস্থ বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটর এনএফ এন্টারপ্রাইজের মাসিক বেতনভুক্ত সিএনজি চালক ও ‘মানি রানার’ হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার সহযোগি হিসেবে গ্রেফতার করা হয়েছে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের চৌধুরী পাড়ার বাসিন্দা মৃত আবুল হোসাইনের ছেলে জসিম উদ্দিন (৫৫) ও তার স্ত্রী সাজেদা বেগম (৪২)।
২০ নভেম্বর বিকালে কক্সবাজার সদর থানা প্রাঙ্গনে আনুষ্ঠানিক প্রেসব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম।
তিনি বলেন, ১৮ নভেম্বর বিকাল পৌনে ৪ টার দিকে ইনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লি. কক্সবাজার শাখা থেকে ৬০ লাখ টাকা উত্তোলন করে অফিসে জমা না দিয়ে আত্মগোপনে চলে গিয়েছিলেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারি মোহাম্মদ ইসমাঈল।
এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন ওই প্রতিষ্ঠানের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) নিজাম উদ্দিন।
পরবর্তীতে ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকার সিসি টিভি ফুটেজ যাচাই করে প্রাথমিকভাবে ২ জনকে শনাক্ত করা হয়। তদন্তে প্রাপ্ত জসিম উদ্দিন ও সাজেদা বেগমের বাসায় অভিযান চালিয়ে ৫৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। টাকাগুলো বসতঘরের খাটের নীচে লোকানো ছিল।
প্রেসব্রিফিংকালে থানার ওসি (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে, তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. আনোয়ার হোসেনসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।
এনএফ এন্টারপ্রাইজের মালিক আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ইনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লি. কক্সবাজার শাখা থেকে উত্তোলনের জন্য বুধবার সকালে মোহাম্মদ ইসমাঈলকে একটি চেক প্রদান করা হয়।
প্রতিদিন টাকা উত্তোলন করে অফিসে জমা দিয়ে গেলেও এবার করেছে উল্টো। ব্যাংক থেকে উত্তেলিত ৬০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায় মোহাম্মদ ইসমাঈল। ঘটনার পরে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। আসামিদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার ও টাকার উদ্ধার করে দেয়ায় পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আনোয়ারুল ইসলাম।

আরো সংবাদ