কক্সবাজারে শীঘ্রই চালু হচ্ছে জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম - Coxsbazarkontho.com

শনিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২০ ১১ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-০১-১৪ ০৮:৪৯:৪৬

কক্সবাজারে শীঘ্রই চালু হচ্ছে জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম

কক্সবাজার : দীর্ঘ দুই বছরের বেশী সময় ধরে কক্সবাজারে বন্ধ থাকা ‘জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম’ শীঘ্রই চালু হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন। গতকাল দুপুরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার বিভাগের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে দেয়া এক বার্তায় এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক। এর মধ্য দিয়ে জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুর্ভোগে থাকা কক্সবাজারবাসীর দাবি পূরণ হতে চলছে। ফেইসবুক বার্তায় কামাল হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসক কক্সবাজারের প্রেরিত এক পত্রের প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের আয়োজিত সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, অল্প কিছু দিনের মধ্যেই কক্সবাজার জেলায় জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম পুনরায় চালু হবে। বিগত ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনীর জাতিগত নির্যাতনের মুখে পালিয়ে কক্সবাজারে আশ্রয় নেয় সাড়ে ৭ লাখেরও বেশী রোহিঙ্গা জনগোষ্টির মানুষ।

Advertisements
এরপর এসব রোহিঙ্গাদের অনেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি কেউ কেউ জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্ট সংগ্রহের হিড়িক পড়ে। তাদের বেশীর ভাগই কক্সবাজারের স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে জন্মনিবন্ধনের সনদ সংগ্রহও করে। এর প্রেক্ষিতে সরকারের উর্ধ্বতন মহল সিদ্ধান্ত নেয় কক্সবাজারে জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ রাখা। সরকারের এ সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে কক্সবাজারের স্থায়ী বাসিন্দাদের ‘স্থায়ী জন্মনিবন্ধন সনদ’ প্রদানের সার্ভারও বন্ধ রাখা হয়। এ নিয়ে কক্সবাজারের সাধারণ মানুষ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন অধিদপ্তরের নানান ধরণের প্রাত্যহিক কাজ করতে গিয়ে দুর্ভোগের সম্মুখিন হতে থাকে।
Advertisements
এ নিয়ে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করে। স্থানীয় নানা শ্রেণী পেশার মানুষের পক্ষ থেকে দাবী উঠে কক্সবাজারে বন্ধ থাকা জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম চালু করার। অবশেষে গতকাল সোমবার ঢাকায় অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের এক সভায় মন্ত্রণালয়টির সচিব মো. হেলাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় সিদ্ধান্ত হয় কক্সবাজারে বন্ধ থাকা ‘জন্মনিবন্ধন’ কার্যক্রম পুনরায় চালু করার। এতে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।
তবে কবে নাগাদ এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে তা সুনির্দিষ্ট করে উল্লেখ করা না হলেও জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন বলেন, সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহের প্রশাসনিক কর্মকান্ড শেষ করার পরই এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।

আরো সংবাদ