Coxsbazarkontho.com » ক্যাম্পের বাজেট হতে বিদ্যালয়ে শিক্ষক চাই

বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৩রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বুধবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০১৯-০৬-২৬ ১৩:১৭:৪৬

ক্যাম্পের বাজেট হতে বিদ্যালয়ে শিক্ষক চাই

রোহিঙ্গা আসার পর উখিয়া টেকনাফের স্থায়ী বাংলাদেশিদের ক্ষয়ক্ষতি একটু কমাতে সরকার ক্যাম্পে বরাদ্ধের ২৫% স্থানীয় বাসিন্দাদের দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এ সিদ্ধান্তের কারণে কিছু কিছু NGO বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লোক দেখানো কিছু উন্নয়ন করছে, যা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। তারা যে বাজেট করে তার বেশির ভাগ ngo কর্মকর্তাদের পিছনে খরচ হয়। ঐদিকে পরে লিখব। রোহিঙ্গাদের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে জাতী তথা শিক্ষা। প্রথমত- বিদ্যালয়ের নবম–দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরা NGO দের লোভনীয় বেতনের দিকে ঝোকছে। দ্বিতীয়ত- উখিয়ায় যে কয়টি শিক্ষা প্রতিষ্টান আছে, তাতে প্রায় প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে দুই হাজারে করে শিক্ষার্থী। যাদের শিক্ষাদানে প্রয়োজনের তুলনায় শিক্ষক অনেক কম। তাই শিক্ষাদান কোনো রকম বাঁচিয়ে রাখতে নিয়োগ দেওয়া হয় খণ্ডকালীন শিক্ষক। কিন্তু তারাও লোভনীয় বেতনের কারনে ক্যাম্পে চলে যায়।
এদিকে সরকারের শিক্ষা বিষয়ে সেবা সপ্তাহে প্রতিপাদ্য বিষয় হল “মানসম্মত শিক্ষা”। শিক্ষক ছাড়া মানসম্মত শিক্ষা কীভাবে সম্ভব? 
রোহিঙ্গাদের কারণে পুরো উখিয়াবাসী ক্ষতিগ্রস্ত। পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্থানীয় জনগণের জন্য যেমন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ব্যয়ের ২৫% বরাদ্ধ রয়েছে। ঠিক সে বরাদ্ধ হতে আনুপাতিক হারে অথবা অগ্রধিকার ভিত্তিতে বিদ্যালয় সমূহে বরাদ্ধ দিতে হবে। 
তবে এই বরাদ্দ শুধু চৌশাগার নির্মানে ব্যয় করলে হবে না। NGO কর্মকর্তা/কর্মচারীদের আনুপাতিক হারে বিদ্যালয়সমূহে শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে। যার সমস্ত খরচ(যথাযত)NGO গুলো বহন করব। উল্লেখ্য যে, NGO গুলো ক্যাম্পে তাদের জনবল দিয়ে রোহিঙ্গাদের শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে। বাংলা শিক্ষা না দেওয়ার কথা থাকলেও তারা অজানা কারণে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশী শিক্ষায় শিক্ষিত করছে। যা মোটেও কাম্য নয়। এ অবস্থায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের যত NGO আছে(প্রায় এক শত) তাদের মোট জনবলের ১% ও যদি বিদ্যালয়ে শিক্ষক (শুধু লেবারের সমান বেতন দিয়ে)হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়, তাহলে আমাদের উখিয়ায় শিক্ষকের সংকট থকবেনা। মানসম্মত শিক্ষা পাওয়া যাবে। আমি ব্যাখ্যা দিচ্ছি- যদি এক NGO শুধু ২ (দুই) জন করে স্থানীয় বিদ্যালয়ের জন্য শিক্ষক নিয়োগ দেয় ২০০ জন শিক্ষক পাওয়া যাবে। একটু ভেবে দেখুন শিক্ষা মান সম্মত হয় কিনা!!??

লেখাটি আমিনুল এহসান মানিকের টাইম লাইন থেকে নেয়া। তিনি সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি, কক্সবাজার জেলা ও প্রধান শিক্ষক পালং মডেল হাই স্কুল, উখিয়া, কক্সবাজার।

আরো সংবাদ

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার
সেপ্টেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০