তুষারধসে পাকিস্তানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১২১ - কক্সবাজার কন্ঠ

সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ ২৯ আষাঢ়, ১৪২৭

সোমবার

প্রকাশ :  ২০২০-০১-১৬ ১১:৪৮:৩৪

তুষারধসে পাকিস্তানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১২১

নিউজ ডেস্ক:  তীব্র তুষারপাত আর তুষারধসে পাকিস্তানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২১ জনে। এর মধ্যে আজাদ কাম্মিরে বরফের নিচ থেকে নতুন করে আরও ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এতে করে বিরোধপূর্ণ এ রাজ্যটিতে তুষারধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৬ জনে।

অন্যদিকে আফগানিস্তানে তীব্র তুষারপাত ও প্রতিকূল আবহাওয়ায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৯ জনে। এছাড়াও তুষারপাত অব্যাহত রয়েছে ভারতের জম্মু-কাশ্মিরেও। তীব্র তুষারপাতে বন্ধ রয়েছে শ্রীনগর-জম্মু -কাশ্মীরের জাতীয় মহাসড়কও।

Advertisements

সাম্প্রতিক ভয়াবহ তুষারধসে এখনও পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মিরে মিলছে মরদেহ। বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। বুধবারও নিলাম ভ্যালিতে বরফের নিচ থেকে নতুন করে উদ্ধার করা হয় আরও ২১টি মরদেহ। এগুলো প্রায় ৩ থেকে ৪ ফুট বরফের নিচে চাপা পড়ে ছিল বলেও জানানো হয়। তবে, তীব্র তুষারপাত অব্যাহত থাকায় তুষারধসে হতাহতদের উদ্ধারে বেগ পেতে হচ্ছে বলে জানান স্থানীয়রা।

বরফের নিচে এখনও বহু মরদেহ চাপা পড়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। নিখোঁজ আছেন আরও অনেকে। এদেরকে উদ্ধারে স্থানীয় উদ্ধারকর্মীদের পাশাপাশি প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবহার করা হচ্ছে হেলিকপ্টার।

একই অবস্থা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বেলুচিস্তান এবং পূর্বাঞ্চলীয় পাঞ্জাবেও। প্রদেশদুটিতে চলমান তীব্র তুষারপাতে ও শৈত্যপ্রবাহে মৃত্যু হয়েছে অন্তত অর্ধশত মানুষের।

অন্যদিকে প্রচণ্ড ঠান্ডা আর প্রতিকূল আবহাওয়ায় বিপর্যস্ত আফগানিস্তান। গেল চারদিনে দেশটিতে আবহাওয়াজনিত কারণে মৃতের সংখ্যা প্রায় অর্ধশত। এছাড়াও, তুষারধসে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তিন শতাধিক ঘরবাড়ি।


এছাড়াও কান্দাহার প্রদেশের পাকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকায় শৈত্যপ্রবাহের মধ্যেই বৃষ্টি হওয়ায় পরিস্থিতি যেন মরার ওপর খাড়ার ঘা হয়ে দেখা দিয়েছে বাসিন্দাদের কাছে।

এই বাড়িতে বাগদান অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অব্যাহত বৃষ্টিতে বাড়িটি আজ ধসে পড়েছে। এতে, এখন পর্যন্ত ছয়জনের মৃত্যু এবং আরও অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে তীব্র তুষারপাত অব্যাহত রয়েছে ভারতের জম্মু-কাশ্মিরেও। তুষারধসের কবলে পড়ে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। তুষারপাত অব্যাহত থাকায় এখনও বন্ধ রয়েছে শ্রীনগর-জম্মু জাতীয় মহাসড়কও। আটকা পড়ে আছে কয়েকশ ভারী যানবাহন।

আরো সংবাদ