দাওয়াতে খায়র ইজতেমাতে দিল্লির মসজিদ ও মুসলিমদের উপর হামলার প্রতিবাদ - কক্সবাজার কন্ঠ । জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল

শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ ২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-০২-২৯ ০৬:৩২:৪৯

দাওয়াতে খায়র ইজতেমাতে দিল্লির মসজিদ ও মুসলিমদের উপর হামলার প্রতিবাদ

হেলাল আহমদ রিজভী: জঙ্গি, সন্ত্রাসবাদ ও অপসংস্কৃতির অন্ধকার থেকে দেশের তরুণ ও যুবকদের ইসলামের শান্তির পথে আনতে ২৮ ফেব্রুয়ারি বাড়বকুণ্ড উচ্চ বিদ্যালয় ময়দানে লক্ষ লক্ষ মুসলমানদের উপস্থিতিতে আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে দা’ওয়াতে খায়র ইজতিমায় সম্পন্ন হয়েছে।
প্রায় ৭৩ জন মুয়াল্লিম দিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে মাসায়ালা-মাসায়েল,ইসলামের আহকাম-আরকানের নিয়ম কানুন প্রশিক্ষণ, শুদ্ধভাবে কুরআন তেলাওয়াত ও প্রশ্নোত্তর প্রদান করেন।
এই ইজতিমায় উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মুহাম্মদ দিদারুল আলম, সাবেক মেয়র আলহাজ্ব মনজুর আলম, আনজুমান ট্রাস্ট’র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব মহসিন, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, আলহাজ্ব সিরাজুল হক,আলহাজ্ব শামসুদ্দিন, মুফতি আল্লামা ওবাইদুল হক নঈমী, অধ্যক্ষ মুফতি আল্লামা ওছিয়র রহমান, উপাধ্যক্ষ ড.লিয়াকত আলী খান, হাফেজ আল্লামা সোলাইমান আনছারী, মুফতি আল্লামা আবদুল ওয়াজেদ, উপাধ্যক্ষ আল্লামা জুলফিকার আলী, মাওলানা আবুল হাসনাত, ড. আল্লামা কামাল উদ্দিন আজহারী, আল্লামা জালাল উদ্দিন আজহারী, আল্লামা আবুল আসাদ জোবাইর রেজভী, আল্লামা আবুল কাশেম ফজলুল হক, আল্লামা আবুল হাসান ওমাইর রেজভী, আল্লামা হাসান আল আজহারী, গাউছিয়া কমিটির কমিটির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব পেয়ার মাহমুদ কমিশনার, সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ারুল হক, আবদুল হামিদ, শাহজাদা ইবনে দিদার, মোছাহেব উদ্দিন বখতেয়ার, আলহাজ্ব মাহবুব এলাহি সিকদার, এড. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, আলহাজ্ব সাদেক হোসেন পাপ্পু,আলহাজ্ব কমর উদ্দিন সবুর, হাবিবুল আলম মাস্টার, মাওলানা ইয়াসিন হায়দার, মাওলানা আবদুল আউয়াল, আহবায়ক আলহাজ্ব মোবারক হোসেন সওদাগর, সদস্য সচিব মাওলানা আলী সিদ্দিকী, মাওলানা আশরাফ হোসাইন, মাওলানা আতিকুল্লাহ, মাওলানা খোরশেদুল আলম, মাওলানা নুরুল আলম, মনজুর এলাহি, ভাটিয়ারী ইউপি চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন, বাড়বকুণ্ড ইউপি চেয়ারম্যান ছাদাকাত উল্লাহ মিয়াজী প্রমুখ।
ইমামে আহলে সুন্নাত, শায়খুল হাদীস, শেরে মিল্লাত আল্লামা ওবায়দুল হক নঈমী (মা.আ) বলেন, ভারতের দিল্লীতে শান্তিপ্রিয় মুসলমানদের ইবাদাতগাহ পবিত্র মসজিদে হামলা, অগ্নিসংযোগের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তিনি আরও বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। ইসলামে অন্য ধর্মের উপর আক্রমন করার কোন ইখতেয়ার নেই। কিন্তু ভারত সরকার এহেন ঘৃনিত কাজের জম্ম দিয়ে উগ্রপন্থী জঙ্গিদের উস্কিয়ে দিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, গাজওয়ায়ে হিন্দ এখন সময়ের অপেক্ষা।
জুমার নামাজের ইমামতি ও আখেরি মুনাজাত পরিচালনা করেন ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারের মহাপরিচালক আলহাজ্ব এম.এ মান্নান।
ভারতসহ সারাবিশ্বের মুসলমানদের শান্তিকামনা, দেশের কল্যাণ, দুনিয়া ও আখেরাতের শান্তি কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।
আখেরি মোনাজাতের আগেই ইজতেমা ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। ময়দানের আশপাশের অলি-গলি, রাস্তা, পাশের বাসাবাড়ি, কল-কারখানা ছাদ, মহাসড়কে অবস্থান নিয়েও অনেকে মোনাজাতে হাত তোলেন। পুরুষদের পাশপাশি নারীদেরও ইজতেমায় মোনাজাতে শামিল হতে দেখা যায়।

আরো সংবাদ