পোকখালী কমিউনিটি পুলিশের বেহাল অবস্থা - Coxsbazarkontho.com | Newspaper

বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বুধবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০১৯-০৯-১৯ ১৮:২৫:২৩

পোকখালী কমিউনিটি পুলিশের বেহাল অবস্থা

বার্তা পরিবেশক: ‘জনতাই পুলিশ, পুলিশই জনতা’ এ শ্লোগান সামনে রেখে ২০০৮ সালে যাত্রা শুরু হয় কমিউনিটি পুলিশের। পুলিশের সঙ্গে দূরত্ব কমানো এবং আইনশৃংখলা রক্ষায় সমাজের সব শ্রেণী-পেশার মানুষের সহায়তার জন্য গঠন করা হয় বিশেষ এ সংগঠন। আইনগত কোনো ভিত্তি না থাকলেও সারা দেশের প্রতিটি থানা এলাকায় কমিনিউটি পুলিশ গঠন করা হয়। পুলিশ বিভাগে লোকবল কম থাকায় আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের সহায়তাকারী হিসেবে এ উদ্যোগ বেশ আলোচিত হয়। শুরুতে কমিউনিটি পুলিশ সক্রিয় থাকায় এলাকায় অপরাধ কমে আসে। তবে বর্তমানে পুলিশ প্রশাসনের উদাসীনতা ও সঠিক পরিচালনার অভাবে কমিউিনিটি পুলিশিং কার্যক্রমে ভাটা পড়েছে। কোনো কোনো এলাকায় তাদের কর্মকান্ড নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। নানা অভিযোগ রয়েছে স্বেচ্ছাসেবী এ সংগঠনটির বিরুদ্ধে। শুধু কি অভিযোগ তাই? কোথাও কোথাও স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনের সদস্য হিসেবে রয়েছেন জামায়াত-বিএনপির স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। তারই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজার সদর উপজেলার পোকখালী ইউনিয়নের ১ নং ও ৩ নং ওয়ার্ডের ও একই অবস্থা।

অনুসন্ধানে জানা গেছে- ওই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন ওই এলাকার  মোস্তাফিজুর রহমান। সে দীর্ঘদিন পোকখালী ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে একই সংগঠনের সক্রিয় সদস্য। অপরদিকে ৩ নং ওয়ার্ডের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন একই এলাকার মো: শাহজাহান প্রকাশ শাহজাহান মেম্বার। তিনি দীর্ঘ সময় ধরে জেলা যুবদলের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানেরও ওই সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন। এতে নতুন করে সৃষ্টি হয়েছে রাজনৈতিক সংকট।

ভুক্তভোগীরা বলেছেন, নিজেদের লোকদের আইনের আওতা থেকে দুরে রাখতে এ অসাধু কিছু সদস্যের কারণে কমিউনিটি পুলিশিং এখন সাইনবোর্ড সর্বস্ব সংগঠনে পরিণত হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক ( অপারেশন) মো: ইয়াছিন জানান, সঠিকভাবে পরিচালনা করা গেলে কমিউনিটি পুলিশ দিয়ে আইনশৃংখলা বাহিনী অনেক সুফল পেতে পারে। যে অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে এসেছে তা খতিয়ে দেখা হবে। পোকখালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জানান, মোস্তাপিজুর রহমান ও মো: শাহজাহান বর্তমানেও বিএনপি রাজনীতির সাথে জড়িত বলে তিনি দাবী করেছেন। এদিকে পোকখালী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতা অভিযোগ করেন, কমিউনিটি পুলিশের কমিটিতে জামায়াত বিএনপির কর্মীদের স্থান দেয়ার মুল কারণ হচ্ছে তাদরে নেতা কর্মীদের নিরাপদে রাখা। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করতে জামায়াত বিএনপির সদস্যদের কমিউনিটি পুলিশের কমিটি থেকে বাদ দিয়ে কমিটিকে স্বচ্ছ রাখার জোর দাবী জানান। এ বিষয়ে সদর উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি এডভোকেট রেজাউল করিম রেজা জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযোগ প্রমানিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো সংবাদ

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার
অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১