বাংলাদেশে ঈদের দিন এলো আক্রান্ত-মৃত্যু কমার খবর - কক্সবাজার কন্ঠ

রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-০৮-০১ ১০:২১:৫৬

বাংলাদেশে ঈদের দিন এলো আক্রান্ত-মৃত্যু কমার খবর

দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের মৃত

নিউজ ডেস্ক :  মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গোটা বিশ্ব। প্রায় দীর্ঘ ৮ মাস ধরে করোনার তাণ্ডব চলছে দেশে দেশে।বাংলাদেশেও প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃত্যুর সারি দীর্ঘ হচ্ছে। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে আরও ২ হাজার ১৯৯ জনের দেহে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৭ জন। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে আরও ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ হাজার ১৩২ জন।

ঈদুল আজহার দিন শনিবার (১ আগস্ট) দুপুরে কোভিড-১৯ সম্পর্কিত নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

সারাদেশের নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে নাসিমা সুলতানা জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮ হাজার ৮০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ১১ লাখ ৮৫ হাজার ৭৮১ জন । নতুন পরীক্ষা করা নমুনায় আরও ২ হাজার ১৯৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৭ জন। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ২১ জনের। ফলে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেলেন ৩ হাজার ১৩২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ১ হাজার ১১৭ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৫৩ জন।

এর একদিন আগে শুক্রবার (৩১ জুলাই) দুপুরে আরও ২ হাজার ৭৭২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত এবং আক্রান্তদের মধ্যে আরও ২৮ জনের মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

এদিকে পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ের্ল্ডোমিটারসের তথ্যমতে শনিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৮৩ হাজার ৩৮৯ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৭৭ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪৬ জনের। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ কোটি ১১ লাখ ৭৭ হাজার ১৩২ জন।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার। ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। কয়েক দফা বাড়িয়ে এ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত করা হয়। ছুটি শেষে করোনার বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যেই ৩১ মে থেকে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়া হয়। তবে বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

আরো সংবাদ