বাবা কি হয়ে গেলো এভাবেই কি তুমি হারিয়ে গেছো! - কক্সবাজার কন্ঠ

রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রবিবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০১৭-০৬-১৭ ২২:১৬:৫৭

বাবা কি হয়ে গেলো এভাবেই কি তুমি হারিয়ে গেছো!

Fatherআজ ১৮ জুন বিশ্ব বাবা দিবস। এই দিনে শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করছি যিনি আমাকে জন্ম দিয়ে এতো বড় করে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন তিনি আমার বাবা ডাক্তার ছিদ্দিক আহমদ। তিনি গত ৬ ডিসেম্বর ২০১৬ ইংরেজী তারিখে স্বাভাবিক ইন্তেকাল করেছেন। জন্মস্থান আর কর্মস্থল একটু ভিন্ন হওয়ায় বাবার সাথে শেষ দেখা আমার হয়নি। তবে ইন্তেকালের ২ দিন আগে ব্যাংকে ভাতা নিতে এসে আমার সাথে শেষ কথা হয়েছিল যে বাক্যটি দিয়ে তিনি শুরু করেছিলেন, মোবাইলে কি বলব মোউ, সাক্ষাতে কথা হবে এই কথাটি বলে বাবা আমার কাছ থেকে চির বিদায় নিয়েছিলেন। খুবই কষ্ট করে বাবা চাকরিটা নিয়ে আমাদের লালন-পালন করেছেন যা ভাষায় প্রকাশ করা কখনও সম্ভব হবে না। আমাদের ৫ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে বাবা আমাকে সবচেয়ে বেশি আদর ¯েœহ আর বিশ্বাস করতেন। তিনি স্বাস্থ্য বিভাগে চাকরি করতেন। দীর্ঘ ৩৫ বছর চাকরি জীবন শেষ করে অবশেষে ১৯৯৬ সালে তিনি মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে সরাসরি অবসরে যান। আজকের এই দিনে আপনাদের সবার কাছে আমার পিতার জন্য একটু দোয়া কামনা করছি। তবে আমি বাবার পাশে বেশি থাকতাম। বাবার পাশে থেকে যা দেখেছি তা হচ্ছে, কোনো দিন বেশি কথা বলতে দেখি নাই…মিথ্যা বলতে দেখি নাই, নামাজ না পড়ে থাকতে দেখি নাই, লেনদেনের ব্যাপারে খুবই সর্তক, তিনি পবিত্র রমজান মাসে গভীর রাতে উঠে নামাজ পড়তেন। সর্ব-পরি বলতে চাই তিনি একজন আশেকে রাসুল ছিলেন। বাবা সবসময় মৃত্যুকে স্বরণ করতেন……বাবার কার্যক্রম পর্যালোচনা করে আমি মনে করি তিনি সৃষ্টিকর্তাকে খুশি করতে পেরেছেন। মহান আল্লাহ এই পবিত্র রমজানের দিকে তাকিয়ে যেনো বাবাকে জান্নাতের বাসিন্দা বানিয়ে দেন -আমীন। প্রার্থনা-প্রার্থী মরহুমের ৫ সন্তান জসিম উদ্দিন সিদ্দিকী, সম্পাদক ও প্রকাশক কক্সবাজার কন্ঠ ও কক্সবাজার নিউজ এজেন্সী, লোকাল এডিটর দৈনিক ইনানী।

আরো সংবাদ