ভারুয়াখালীতে দিনে দুপুরে দখলবাজদের হামলা : নারীসহ আহত ৪ - কক্সবাজার কন্ঠ

রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২১-০৩-০৬ ২১:১২:৩৩

ভারুয়াখালীতে দিনে দুপুরে দখলবাজদের হামলা : নারীসহ আহত ৪

ভারুয়াখালীতে দিনে দুপুরে দখলবাজদের হামলা : নারীসহ আহত ৪

বার্তা পরিবেশক :  কক্সবাজার সদরের ভারুয়াখালীতে খতিয়ানভুক্ত ১০০ বছরের অসহায় বসত বাড়ীতে আইয়ামে জাহেলিয়া যুগের মতো দিনে দুপুরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ( ৫ মার্চ)  জুমার নামাজের পূর্বে পরিকল্পিতভাবে বসতবাড়িটি দখলের উদ্দেশ্যে দখলবাজরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় ওই নিরীহ পরিবারের বৃদ্ধ মা ফরমুজা খাতুনসহ ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছে। তারা বর্তমান কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের ছেলে মুফাজ্জল হোসাইন বাদী হয়ে কক্সবজার সদর মডেল থানায় দখলবাজদের বিরুদ্ধে একখানা এজাহার দায়ের করেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, এলাকার গরীব ও নিরীহ লোক হওয়ায় আসামীরা প্রভাবশালীর মতো ক্ষমতা ব্যবহার করে বাদীর বসতবাড়ি কুমানসে দখলের উদ্দেশ্যে নানা ধরণের ষড়যন্ত্র করে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিলো। অবশেষে ৫ মার্চ ( শুক্রবার) জুমার নামাজের পূর্বে বসতবাড়িটি দখলের উদ্দেশ্যে ফিল্ম স্টাইলে নিরীহ এ পরিবারের উপর হামলা চালায়।

ভারুয়াখালীর শামসুল আলমের পুত্র আলতাজ এর হুকুমে মৃত কালামিয়ার পুত্র নবাব মিয়া (৩০) দা কিরিচ লোহার রড নিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে পরিবারের ৪ জন সদস্যকে মারাত্মকভাবে গুরুতর আহত করে।

এতে ভুকক্তভোগি পরিবার হামলা থেকে বাঁচার জন্য বাঁধা প্রদান করলে  আলতাজ, শাহজাহান এবং শামসুল আলম তাদের হাতে থাকা দা দিয়ে মাথায়, ডান হাতে, বাম হাতে কুপ মেরে রক্তাক্ত ও জখম করে। তাদের এ ধরনের পৈশাচিক হামলায় বাদীর বড় ভাই মোজাম্মেল , তার স্ত্রী আসমা আক্তারকে শ্লীলতাহানিসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্নক জখম করে।

মামলার এজাহার সূত্রে আরও জানা যায়,  রহমত উল্লাহ বাদীর বৃদ্ধ অসুস্থ মা ফরমুজা খাতুনকে বসতঘর থেকে চুলের মুঠি ধরে টানা হেচড়াপূর্বক বের করে এবং নবাব মিয়া রড দিয়ে সজোরে বারি মেরে ডান পায়ের হাঁটুতে ভাঙ্গা জখম করে।

এজাহারে আরও জানা যায়, আসামীগণ পরিবারের সকল সদস্যদের মারাত্মকভাবে জখম করে মাটিতে ফেলে দিয়ে বসতবাড়িতে প্রবেশ করে আলমারি ভেঙ্গে গরু বিক্রির ৮০ হাজার টাকা, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, বাদীর বড় ভাইয়ের স্ত্রীর পরিহিত গলার চেইন,স্বর্নের আংটি, হাতের চুরি জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

সূত্র জানায়, বর্তমানে ভুক্তভোগিদের মারাত্মকভাবে আহত করে যার কারনে তারা হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। এসময় নরপশুরা ওই বসতবাড়ি দখল করে নতুন করে ঘর নির্মাণ শুরু করেছে। এদিকে হামলায় আহত মোজাম্মেল হকের অবস্থাও আশাঙ্কাজনক বলে অবগত করেছেন কর্তব্যরত ডাক্তার।  মামলার বাদী মোফাজ্জল হোছাইন জানান, পরিবারের সকল সদস্যরা মারাত্নকভাবে আহতে হয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি।  একদিকে পরিবারের সদস্যরা আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে।

অপরদিকে দখলবাজরা বসতবাড়ি দখল করে নতুন বসতবাড়ি নির্মাণ শুরু করেছে! হামলায় আহত আমার বৃদ্ধ মায়ের আত্নচিৎকার আমাকে এখনো তাড়িত করে। আমার বৃদ্ধ মায়ের পা ভেঙ্গে দিয়ে হাসপাতালের বিছানায় যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন।  তিনি আরও বলেন, প্রভাবশালী দখলবাজ সিন্ডিকেটের হাত থেকে আমাদের পরিবারকে রক্ষা করার জন্য কক্সবাজার জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থাসহ সচেতন মহলের কাছেতিনি  হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি তদন্ত বিপুল চন্দ্র দে বলেন, ভুক্তভোগী পরিবারের একজন সদস্য থানায় এজাহার দায়ের করেছেন। তদন্তপূর্বক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো সংবাদ