মহেশখালীতে ব্যাপক তান্ডব : ৩০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা - কক্সবাজার কন্ঠ

রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২১-০৪-০৪ ১৩:৩৪:৫২

মহেশখালীতে ব্যাপক তান্ডব : ৩০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মহেশখালীতে ব্যাপক তান্ডব : ৩০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মহেশখালী প্রতিনিধি : কক্সবাজারের মহেশখালীতে হেফাজত ইসলামের ব্যানারে লাঠি মিছিলের পর দফায় দফায় আওয়ামী লীগের অফিসে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটেছে। রোববার (৪) এপ্রিল দিবাগত রাত ১২টার দিকে উপজেলার বড় মহেশখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ফাঁকা গুলি ছুঁড়লে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে প্রায় ৩০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। পরে উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক তারেক রহমান জুয়েলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মহেশখালী থানার ওসি মো. আব্দুল হাই সাংবাদিকদের বিষয়টি স্বীকার করেছেন।
তিনি জানিয়েছেন, যে কোনো উপায়েই এমন জঘন্য ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে। ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের শনাক্ত করে গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা চলছে।

পুলিশ জানিয়েছে, রাত ১২টার দিকে একটি বিশাল লাঠি মিছিল বড় মহেশখালী থেকে উপজেলা সদরে আসে। মিছিলটি পৌর শহরের গোরকঘাটা বাজার থেকে সড়কের দু’পাশে ভাংচুর চালিয়ে উপজেলা পরিষদ এলাকায় প্রবেশ করে। এ সময় মূল ফটক বন্ধ পেয়ে সরকারি কার্যালয় লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

আওয়ামী লীগ নেতাদের দাবি, হেফাজতে ইসলামে’র ব্যানারে মূলত বিএনপি-জামায়াতের লোকজন এ হামলা চালিয়েছে। বড় মহেশখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজ মিয়া বাঁশির দাবি, আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করেছে মৌলবাদী হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মীরা। তাদের সঙ্গে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের উশৃংখলকর্মীরাও অংশ নিয়েছে।
মহেশখালী-কুতুবদিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জাহেদুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে মহেশখালীতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সমগ্র বিষয়টিকে কঠোরভাবে দেখছে পুলিশ।

মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমপি আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, ‘গভীর রাতে হঠাৎ করে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা খুবই দুঃখজনক। বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোরভাবে দেখছেন। তিনি সবাইকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন।

এ নিয়ে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহাফুজুর রহমান জানান, মহেশখালীতে হেফাজত নেতা মামুনুল হক ইস্যূতে যে বা যারা তান্ডব চালিয়ে সরকারি অফিস, জনমালামালসহ হামলা চালিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এদিকে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক ইস্যূতে শনিবার (৩ এপ্রিল) রাত ১০টা দিকে উপজেলার কালারমার ছড়ায় উত্তরনলবিলায় বৌদ্ধ মন্দিরে আক্রমণের চেষ্টা করা হয়েছে। কালারমার ছড়ায় যুবলীগ নেতাকে হামলা ও বাড়ি ভাংচুর, বড় মহেশখালীতে আওয়ামী লীগ অফিসে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। পরে মিছিল থেকে উপজেলা পরিষদে ইট নিক্ষেপ করে জানালা ভাংচুর করে ও থানায় হামলা করা হয়েছে। পুলিশকে অবরুদ্ধ করার চেষ্টা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ফাঁকা গুলি বর্ষণ করেছে। আহত হয়েছে একাধিক পুলিশ সদস্য।

আরো সংবাদ