মহেশখালীতে স্কুল ছাত্রকে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় আটক ৩! - কক্সবাজার কন্ঠ

বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০ ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-০৫-২৮ ১৪:১৬:৩২

মহেশখালীতে স্কুল ছাত্রকে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় আটক ৩!

নিজস্ব প্রতিবেদক :  কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নে চুরির অপবাদ স্কুল ছাত্রকে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে  বলে জানাগেছে। ২৮ মে সকাল ১১ টার দিকে কালারমারছড়ায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৩ জনকে আটক করে। ২২ মে ভোরে মহেশখালীর কালারমারছড়ার নয়াপাড়ায় ধলঘাটা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছালেহ আহমদের বাড়ীতে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানায়, চুরির অপবাদে ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া ওসমান গনি (১৩) উপর কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ আবু তাহের নেতৃত্বে ছালেহ আহমদ ও সেলিম মিলে অমানবিক নির্যাতন চালায়। উক্ত ঘটনার ধারণকৃত ভিডিওটি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ভাইরাল হয়।
ঘটনাটি পুলিশের নজরে পড়লে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধরের নির্দেশে কালারমারছড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ কিশোর বড়ুয়ার নেতৃত্বে গ্রাম পুলিশ আবু তাহের, ছালেহ আহমদ ও সেলিমকে আটক করা হয় বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করে। নির্যাতনের শিকার শিশুটি ওই ইউনিয়নের চিকনি পাড়া গ্রামের কৃষক মোহাম্মদ হোছাইনের ছেলে। শিশুটি কালারমারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীতে অধ্যায়নরত। নির্যাতিত শিশুর পিতা মো. হোছাইন জানান, এরকম অমানবিক নির্যাতন মানুষকে মানুষ করতে পারে না! তাও আবার শিশুকে। আমি এ শিশু নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচার চাই।
মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, শিশু নির্যাতনের ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক করতে পুলিশের অভিযান চলমান রয়েছে। তবে ভুক্তভোগিরা জানিয়েছে একটি পক্ষ ঘটনাটি ভিন্নখাতে নিতে মিশনে নেমেছে। তারা এ ঘটনার সুষ্ট তদন্তপূর্বক অপরাধীদের আইনে আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছে।  এদিকে এ ঘটনা নিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বিস্তারিত আসছে……

আরো সংবাদ