মাগুরায় খেজুর রস সংগ্রহে ব্যস্ত গাছিরা - Coxsbazarkontho.com

বুধবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২০ ১৫ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বুধবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০২০-০১-০৯ ০৯:৪৯:৪৪

মাগুরায় খেজুর রস সংগ্রহে ব্যস্ত গাছিরা

নিউজ ডেস্ক:  মাগুরায় পৌষের মাঝামাঝিতে খেজুর রস সংগ্রহে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন গাছিরা। গাছিদের পাশাপাশি বাড়িতে রস জ্বালিয়ে পাটালি গুড় তৈরিতে ব্যস্ত পরিবারের নারীরাও। আর শীতে পিঠাপুলির তৈরির জন্য হাট বাজারে নতুন গুড় পাটালির চাহিদাও বেড়েছে।

মাগুরার বিভিন্ন এলাকায় শীতের শুরু থেকেই চলছে গাছিদের তোড়জোড়। হিম–কুয়াশা আর কনকনে শীত উপেক্ষা করে খেজুর গাছ থেকে রস আহরণে ব্যস্ত তারা। আর সেই রস দিয়ে পাটালি গুড় তৈরিতে পুরুষদের পাশাপাশি কাজ করছেন ঘরের নারীরাও। রসের চাহিদা বেশি ও ভালো দাম পাওয়ায় গাছিরা খুশি।

গাছিরা বলেন, আমাদের পূর্ব-পুরুষ এই কাজ করে আসতেছে, আমরাও করতেছি। প্রতিদিন ৩০ টা গাছ থেকে রস সংগ্রহ করি। ওইটা বাজারে বিক্রি। তা দিয়ে আমাদের সংসার চলে।

খাঁটি খেজুরের রসের গুড় পাটালি মানেই পিঠা পায়েসের আলাদা তৃপ্তি। তাই হাটবাজারে এর ব্যাপক চাহিদা।

গুড় পাটালি ক্রেতারা জানান, বাড়িতে মেহমান এসেছে। সেজন্য হাট থেকে গুড় কিনতে এসেছি।

অন্য একজন ক্রেতা জানান, এখানে গুড়ের চাহিদা অনেক বেশি। আসার সাথে সাথে শেষ হয়ে যায়। দামও অনেক বেশি।

Advertisements
তবে গাছ সঙ্কটের কারণে অনেক গাছি রস সংগ্রহ পেশা ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানান।

এক গাছি জানান, আগে অনেক গাছ ছিল। এখন গাছের সংখ্যা কমে গেছে। দুই-চার আছে, সেগুলো কাটি।

অবশ্য জেলা কৃষি বিভাগ বলছে, রস সংগ্রহের ঐতিহ্য টিকিয়ে রাখতে প্রতি বছরই নতুন খেজুর গাছ লাগানো হচ্ছে।

মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. জাহিদুল আমিন বলেন, আমরা প্রতি বছরই রাস্তার ধারে লাগাই। সেই সাথে চাষিদেরও উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। খেজুর গাছ লাগাতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আয়োজনও করা হচ্ছে।
জেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, মাগুরায় ১৮২ হেক্টর জমিতে প্রায় ৩৬ হাজার খেজুর গাছ রয়েছে। গত বছর আড়াই হাজার মেট্রিক টন রস সংগ্রহ হয়েছিল।

আরো সংবাদ