মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামীদের জিঙ্গাসাবাদ শুরু - কক্সবাজার কন্ঠ

শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-০৮-০৮ ১৬:৫৬:১৬

মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামীদের জিঙ্গাসাবাদ শুরু

জসিম সিদ্দিকী : কক্সবাজারে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ৭ আসামীকে রিমান্ডে জিঙ্গাসাবাদ শুরু করেছে র‌্যাব-১৫। প্রথম দফায় আজ ৮ আগষ্ট কক্সবাজার জেলা কারাগারের ফটকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া ৪ জনকে জিঙ্গাসাবাদ করছে র‌্যাবের তদন্ত টীম। ৭ দিন করে রিমান্ডে নেয়া ৩ আসামী টেকনাফ বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির বরখাস্ত হওয়া ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী, বরখাস্ত টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এবং এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিতকে ৯ আগষ্ট র‌্যাব-১৫ এর হেফাজতে নিয়ে জিঙ্গাসাবাদ শুরু হবে। কক্সবাজার জেলা কারাগারের জেল সুপার মোকাম্মেল হোসেন মুঠোফোনে দেয়া তথ্যানুযায়ী ৮ আগষ্ট দুপুর দেড়টার দিকে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত থেকে মেজর সিনহা হত্যা মামলার প্রয়োজনীয় নথিপত্র জেলা কারাগারে পৌঁছেছে।

র‌্যাব-১৫ এর উপ অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান বলেন, সুষ্ট ও নিরপেক্ষ তদন্ত কার্যক্রম চলছে। জিঙ্গাসাবাদের মাধ্যমে ঘটনার ক্লু উদ্ঘাটনের চেষ্টা করা হচ্ছে। এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর সহাকারী পুলিশ সুপার জামিল। উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে বাহারছড়া চেকপোস্টে তল্লাশীর সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ৫ আগস্ট নিহত সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস বাদী হয়ে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়িাল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ইন্সপেক্টর লিয়াকত, ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

৬ আগস্ট বরখাস্ত ওসি প্রদীপসহ ৭ আসামী কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল আদালতে আত্মসমর্পন করেন। মামলার শুনানীতে র‌্যাবের পক্ষে প্রত্যেক আসামীর ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত ইন্সপেক্টর লিয়াকত, ওসি প্রদীপ এবং এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিতকে ৭দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বাকী ৪ জনকে কারাফটকে ২দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।
বাকী ২ আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করা হয়। তবে এজাহারে উল্লেখিত ৮ ও ৯ আসামী এসআই টুটুল ও কনষ্টেবল মো: মোস্তফা নামের কেউ কক্সবাজারে জেলা পুলিশে নেই বলে জানান আসামী পক্ষের আইনজীবী রাখাল মিত্র।

আরো সংবাদ