আজ মেজর হাফিজের ৭৬তম জম্মদিন - Coxsbazarkontho.com | Newspaper

মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ ২৭শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মঙ্গলবার

প্রকাশ :  ২০১৯-১০-২৯ ০৯:৩৯:১১

আজ মেজর হাফিজের ৭৬তম জম্মদিন

স্টাফ রিপোর্টার:বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব মেজর অব.হাফিজ উদ্দিন আহমেদ এর ৭৬ তম জম্মদিন ২৯ অক্টোবর। ১৯৪৪ সালের ২৯ অক্টোবর ভোলার লালমোহনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

Advertisements

তাঁর পিতা ডা.আজাহার উদ্দিন আহমেদ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান জাতীয় পরিষদে বিরোধী দলের উপনেতা ছিলেন। মেজর হাফিজের শৈশব-কৈশোর কেটেছে বরিশাল শহরেই। বরিশাল জিলা স্কুল হতে মেট্রিক, ব্রজমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ(বিএম) হতে ইন্টারমিডিয়টে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি লাভ করেন।

তিনি ছোট বেলা হতেই এক খেলা পাগল কিশোর ছিলেন। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক ছিলেন।জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে দেশ-বিদেশে অসাধারণ ক্রীড়া নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন। ১৯৬৭ সালে প্রথমবারের মতো পাকিস্তান জাতীয়দলের অধিনায়ক হয়ে ইরান-তুরস্ক ও বার্মা সফর করেন।এ্যাথলেটিক্সেও তাঁর কৃতিত্ব রয়েছে। ১৯৬৪ সালে প্রাদেশিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে পূর্ব পাকিস্তানের দ্রুততম মানব হওয়ার খেতাব অর্জন করেন। তিনি ‘ফিফা’ কর্তৃক বিংশ শতাব্দীর সেরা ফুটবলার হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

Advertisements

১৯৬৮ সালে তিনি সেনাবাহিনীর ইস্ট-বেঙ্গল রেজিমেন্টে কমিশন লাভ করেন। ১৯৭১ সালের ১৬ মার্চ পর্যন্ত তিনি পশ্চিম পাকিস্তানে ছিলেন। ১৭ মার্চ তিনি দেশে ফিরেন।যশোর ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত অবস্থায় ১৯৭১সালের ৩০ মার্চ বাঙালি অফিসারদের র্নিযাতনে তিনি বিদ্রোহ করে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে ভয়ভয় যুদ্ধ শেরপুরের-কামালপুরে পশ্চিম পাকিস্তানের ঘাটিতে ভয়াবহ আক্রমণ চালিয়ে তিনি সম্মুখযুদ্ধে গুরুতর আহত হন। তাঁর পাশে থাকা ঘনিষ্ঠ সহকর্মী ক্যাপ্টেন সালাউদ্দিন সে যুদ্ধে শহীদ হন।

অল্পের জন্য বেঁচে যাওয়া মেজর হাফিজ মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য রাস্ট্রীয় খেতাব “বীর বিক্রম” উপাধিতে ভূষিত হন। ১৯৮৬-২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি টানা ছয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পানিসম্পদ- বাণিজ্য ও পাট মন্ত্রণালয়রে মন্ত্রী হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামে তিনি রাজপথ হতে একাধিকবার গ্রেপ্তার হয়ে কারাবরণ করেন। সততা, মেধা, কর্তব্যনিষ্ঠা ও বাগ্মিতার কারণে সব প্রতকিূলতা অতিক্রম করে জনকল্যাণমূলক রাজনীতির অভীষ্ট লক্ষ্যে তিনি এগিয়ে চলেছেন।ব্যক্তি জীবনে মেজর হাফিজ স্ত্রী দু’পুত্র ও এক কণ্যা সন্তানের জনক।

বাংলাদেশের রাজনীতিতে সৎ ও ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত,বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী এ বর্ষীয়ান নেতার জম্মদিন উপলক্ষে তাঁর নির্বাচনী এলাকার দলীয় নেতা-কর্মীরা বনানীর অফিসে মিলাদ,দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে বলে জানা গেছে।

আরো সংবাদ

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার
নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০