কুতুপালং ক্যাম্প পরিদর্শন করলেন প্রিয়াঙ্কা

জসিম সিদ্দিকী: কক্সবাজার সফরের দ্বিতীয় দিনে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত ও বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। প্রিয়াঙ্কা ২২ মে টেকনাফের লেদা ও উনচিপ্রাং এলাকার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের কথা থাকলেও তার কর্মসূচিতে পরিবর্তন আনা হয়।
সকালে তিনি ইনানীর হোটেল রয়েল টিউলিপ থেকে বের হয়ে মেরিন ড্রাইভ ধরে টেকনাফের সাবরাং এলাকা পরিদর্শনে যান। ওই পথ দিয়েই সবচেয়ে বেশী রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকেছে। সেখানে তিনি শিশুদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে টেকনাফ থেকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প পরিদর্শনে যান প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সেখানেও তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন।
ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত হয়ে তার রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনে আসার খবর গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জেনে প্রিয়াঙ্কাকে দেখতে উখিয়া ও টেকনাফের স্থানীয় জনগণও ভিড় জমান।
এসময় নির্যাতিত শিশুদের সাথে তিনি কথা বলেন এবং সময় কাটান। পর্দার এ তারকাকে কাছে পেয়ে মেতে ওঠে রোহিঙ্গা শিশুরাও। অনেক শিশু আনন্দে আত্মহারা যেমন হয়েছে, আবার কেউ কেউ ফেলেছে চোখের পানিও। আর তাদের দুর্দশা দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে ওঠেন প্রিয়াঙ্কাও।
অসহায় রোহিঙ্গা শিশুদের রক্ষায় বিশ্ববাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এ অভিনেত্রী। পরে বেলা ১২টার দিকে উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্পে গিয়ে রোহিঙ্গাদের দুর্দশার কথা শুনেন। এসময় রোহিঙ্গারা তাঁর সাথে কুশল বিনিময় করেন। তিনি রোহিঙ্গাদের উপর অমানবিক নির্যাতনের খোঁজ খবর নেন।
এর আগে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বেসরকারি একটি ফ্লাইটে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছান। এরপর সড়ক পথে তিনি ইনানীর একটি পাঁচতারকা মানের হোটেলে ওঠেন। পরে সেখান বিকাল ৪টার দিকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সার্বিক পরিস্থিতি এবং খোঁজ-খবর নিতে টেকনাফের শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।
কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরাজুল হক টুটুল জানান, ২য় দিনে ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত ও বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া একাধিক রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।
উল্লেখ্য, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এ সফরে এসেছেন ইউনিসেফের হয়ে। প্রকৃতি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নারী অধিকার ইত্যাদি বিষয়ে কাজ করে চলেছেন এ বলিউড অভিনেত্রী। এর আগে গত বছর প্রিয়াঙ্কা গিয়েছিলেন জর্ডানে, সিরিয়ান শরণার্থী শিশুদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে। তিনি তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, ‘রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করব এবং সেখানকার সব অভিজ্ঞতা শেয়ার করবো ইনস্টাগ্রামে। এ ব্যাপারে তিনি সারা বিশ্বকে এগিয়ে আসা আহবান জানান। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া’র সফর সূচি থেকে জানা গেছে ২৪ মে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি কক্সবাজার ত্যাগ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*