আন্দোলন অবশ্যই যৌক্তিক, কিন্তু পিছনে এরা কারা!

ছাত্রদের আন্দোলন অবশ্যই যৌক্তিক। আমি নিজেও একজন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া স্টুডেন্ট। কিন্তু পুরো জাতির কাছে আমি প্রশ্ন করতে চাই! এই নোংরা ভাষা দিয়ে ফেস্টুন তৈরী করে আবার সেটা নারী ছাত্রীর হাতে ধরিয়ে দিয়ে ছবি তুলে তা ভাইরাল করে আমাদের নারী জাতিকে সবার সামনে উলঙ্গ করা হয়েছে। এতে আমাদেরকে লজ্জা দেয়া হয়েছে। আমি একজন নারী হিসাবে এর পেছনে থাকা কুলাঙ্গারের শাস্তি দাবি জানাচ্ছি। আর ঐ কুলাঙ্গার অবশ্যই নারীখোর বদমাশ হবে। সরকার প্রতি দাবী জানাচ্ছি ওই সমস্ত কুলাঙ্গাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দিতেই হবে। আমার ধারণা কোনো ভাল মানুষ এ কাজ করতে পারে না। যারা এর পেছনে ইন্ধনদাতা হিসেবে রয়েছে তাদের খুঁজে দেখুন কেমন পরিবারের সন্তান! আমার মনে হয় নারীকে হেয় করার জন্য এমন ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে। আমি নারী হিসাবে এর তীব্র ঘৃনা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি শিশু কিশোরদের হাতে এমন ফেস্টুন তুলে দেওয়াতে তাদের শাস্তি ও দাবি করছি।

বিনীত..মাহী নূর মাহি,   স্নাতক সম্মান, অধ্যায়নরত, ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ, গাজীপুর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*