জামায়াত সদস্যরাও নির্বাচন করতে পারবেন-ইসি সচিব

নিউজ ডেস্ক:আটকানোর জন্য কোনো আইন নেই। জামায়াতের প্রার্থীরাও স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচন করতে পারবেন। আজ শুক্রবার দুপুরে নির্বাচন ভবনে নিবন্ধিত-অনিবন্ধিত দলের সদস্যদের প্রার্থীর ব্যাপারে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের উত্তরে এ কথা বলেন ইসি সচিব। হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘অনিবন্ধিত দল কোনো নিবন্ধিত দলের সঙ্গে জোট করে নির্বাচন করার আইন নেই। জামায়াতে ইসলামের সদস্যরা (স্বতন্ত্র) প্রার্থী হলে তাদের আটকানোর ব্যাপারেও কোনো আইন নেই। জামায়াত ইসলামীর নিবন্ধন বাতিল করা হয়েছে, তবে যদি দলটির কোনো সদস্য স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচন করতে চায় সেটা বন্ধে কোনো উপায় আছে কিনা জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, ‘এমন কোনো আইন নেই। এই অবস্থায় জামায়াতের প্রার্থীরাও স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচন করতে পারবেন। তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নিবন্ধন নেই এমন দলের সদস্যরা যেকোনো নিবন্ধিত দলের প্রার্থী হতে পারবেন। এক্ষেত্রে ডা. কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, একিএম বদরুদ্দোজার নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্ট, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের মধ্যে যারা নিবন্ধিত দলের সদস্য নন, তারা নিবন্ধিত দলগুলোর প্রার্থী হতে পারবেন।’ইসি সচিব বলেন, ‘অনিবন্ধিতদের নির্বাচন থেকে দূরে রাখার ‘আইন’ নেই। অনিবন্ধিতরা নিবন্ধিত দলের সঙ্গে জোট করতে পারবে না। তবে নিবন্ধিত দলগুলো চাইলে অনিবন্ধিত দলের সদস্যদের তাদের প্রতীকে প্রার্থী দিতে পারবে।’ বিভিন্ন জোটগুলো আগামী তিনদিনের মধ্যেই নিজ নিজ জোটের তথ্য দিতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। আজকেই এ ব্যাপারে দলগুলোর কাছে চিঠি পাঠাবেন বলেও জানান হেলালুদ্দীন আহমদ। এ সময় অনলাইনে আগামী রোববার থেকে সম্ভাব্য প্রার্থীরা অনলাইনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*