সীমান্ত দিয়ে বন্ধ হচ্ছে না ইয়াবা পাচার! বেপরোয়া হুন্ডি ব্যবসায়ীরা


জসিম সিদ্দিকী,কক্সবাজার: কক্সবাজারের টেকনাফে ২২ জন হুন্ডি ব্যবসায়ীর সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। তাঁদের মধ্যে একজন দুবাইয়ে বসে হুন্ডি ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে বলে পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে।
পুলিশ সূত্র জানায়, গত বছরের ৪ মে থেকে ২৭ মার্চ পর্যন্ত চলতি বছরের প্রায় সাড়ে ১০ মাসে টেকনাফ ও কক্সবাজারে ক্রসফায়ারে নিহত হয়েছে ৭৬ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী। এছাড়া তালিকাভুক্ত ১০২ জন ইয়াবা কারবারিও আত্মসমর্পণ করেছে। তারপরও ইয়াবা পাচার বন্ধ হচ্ছে না! বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পদস্থ কর্মকর্তাদের ভাবিয়ে তুলেছে।
পুলিশ প্রশাসন নতুন করে অনুসন্ধান ও তদন্ত শুরু করে চাঞ্চল্যকর অনেক তথ্য বের করেছে। এ তথ্যের আলোকে জড়িত ব্যক্তিরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। এবার তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রক্রিয়া শুরু করেছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ।
মিয়ানমার থেকে দেশে আসছে ইয়াবা। টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বেশির ভাগ ইয়াবা ঢুকছে। ইয়াবা কারবারি ও বাহকের মাধ্যমে তা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থা তাঁদের তালিকা তৈরি করেছে। এতে সাবেক সাংসদ আবদুর রহমান বদি ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের নামও রয়েছে।
আর কক্সবাজারে পুলিশ ইতিমধ্যে ২২ হুন্ডি ব্যবসায়ীর তালিকা তৈরি করেছে। তাঁরা হলেন টেকনাফের মধ্যম জালিয়াপাড়ার জাফর আলম ওরফে টিটি জাফর, নামার বাজারের বদি আলম, সাতকানিয়ার মো. উসমান (টেকনাফে কাপড়ের দোকান আছে), গোদারবিলের টিক্কা কাদের, মধ্যম জালিয়াপাড়ার মো. ইসহাক, মো. ইয়াসিন, মো. ওসমান, মো. তাহের ও আবুল আলী, টিটি জাফরের ভাই কালা মিয়া ওরফে ল্যাংগা কালা, ল্যাংগা কালার ছেলে মো. সাইফুল, দক্ষিণ জালিয়াপাড়ার মো. খুরশিদ, ডেইলপাড়ার মো. আমিন, শীলবুনিয়াপাড়ার মো. শফিক, কুলালপাড়ার আবদুর রশিদ ওরফে ভেক্কু ও মো. সাইফুল, কেকেপাড়ার মো. আইয়ুব ওরফে বাট্টা আইয়ুব, নামার বাজারের মো. ইসমাইল, কুলালপাড়ার মো. শওকত. মোহাম্মদ আলী, পাল্লান পাড়ার মো. ফারুক ও সৈয়দ করিম।
কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, নুর মোহাম্মদ ও নুরুল আমিন আমাদের চোখ-কান খুলে দিয়েছে। তাদের দেয়া তথ্যমতে পুলিশের তদন্তে ২২ হুন্ডি ব্যবসায়ীর পরিচয় পুলিশ পেয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*