ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রস্তুতি


কক্সবাজার: ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে উত্তাল হয়ে উঠেছে বঙ্গোপসাগর। ঘূর্ণিঝড়টি ক্রমেই শক্তি সঞ্চার করে অগ্রসর হতে থাকায়, দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ইতিমধ্যেই ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ঘুর্ণিঝড় মোকাবিলায় টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্প কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে আগাম প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
প্রতিটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ উপকূলীয় অঞ্চলে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবিউল হাসান জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবিলায় স্ব-স্ব ইউপি চেয়ারম্যানদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যেহেতু রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলো অস্থায়ী ভাবে তৈরি তাই তাদের জান মালের নিরাপত্তা দিতে যৌথ প্রশাসন বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। সকল ক্যাম্পের জন্য আলাদা সেবক প্রস্তুত রাখা হয়েছে ।
৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সতর্ক সংকেত থাকায় সমুদ্রে মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকাগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত চলাচল না করতে নিষেধ করা হয়েছে। এছাড়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি ও রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্যদের এবং আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে রাখা হয়েছে। টেকনাফ উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত সিপিপি কর্মকর্তা আব্দুল মতিন জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় ইউএনও অফিসে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি বৈঠক হয়েছে। ইতোমধ্যে সিপিপি সদস্যদের সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*