বাঁকখালী দখলে প্রভাবশালীরা প্রমাণ পেয়েছে দুদক


জসিম সিদ্দিকী: কক্সবাজারের বাঁকখালী নদীর তীর অবৈধভাবে দখল করে আসছে সরকার দলীয় নেতাসহ প্রভাবশালীরা। এমন অভিযোগ দীর্ঘদিনের। অবশেষে সরেজমিনে পরিদর্শনের পর অবৈধ দখলের প্রমাণ মিলেছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চট্টগ্রাম বিভাগের সহকারী পরিচালক রতন কুমার দাশ। ২৯ মে দুপুরে বাঁকখালী নদীর কস্তুরাঘাট থেকে বাজারঘাটা পয়েন্ট পর্যন্ত পরিদর্শন শেষে তিনি এ তথ্য জানান।
দুদকের চট্টগ্রাম বিভাগের সহকারী পরিচালক রতন কুমার দাশ জানান, দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের সূত্র ধরে কাজ করছে দুদক। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী নদীর মধ্যে বাঁকখালী নদী একটি। এ নদীর তীরে যেভাবে স্থাপনা করা হয়েছে তা যদি চলতে থাকে, তাহলে আগামীতে এ নদী হারিয়ে যাবে।
তিনি বলেন, জেলা প্রশাসন বলছে ৯০ জন দখলদারের তালিকা করা হয়েছে। সরেজমিনে এসে ওই তালিকার বাইরে অনেক রাঘব বোয়ালকে দেখা গেছে। তাই ওই তালিকা সংশোধন করতে বলা হয়েছে। সরেজমিনে পরিদর্শন শেষে দখলের বর্তমান চিত্র তুলে ধরা হবে কমিশনে। এরপর কমিশন যে সিদ্ধান্ত দেবে তা বাস্তবায়ন করা হবে। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, দুদকের চট্টগ্রাম বিভাগের কর্মকর্তা জাফর সাদেক শিবলীসহ পরিদর্শন দলের অন্যান্য সদস্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*