দেশীয় পশুর কথা মাথায় রেখেই মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি বন্ধ!

জসিম সিদ্দিকী, কক্সবাজার: খামারিদের উৎপাদিত কোরবানি গরু ও মহিষের বাজারদর ধরে রাখতে ৬ আগষ্ট হতে মিয়ানমার থেকে সকল প্রকার গবাদি পশু আমদানি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্থানীয় ভাবে উৎপাদিত গবাদিপশুর দরপতনের আশংকায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন বিষয়টি সংবাদকে নিশ্চিত করেন।
গত এক সপ্তাহে আসন্ন কোরবানিকে কেন্দ্র কওে কক্সবাজারের টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ করিডোর দিয়ে প্রায় ১০ হাজার গবাদি পশু স্থানীয় ব্যবসায়ীরা আমদানি করেন। ফলে হঠাৎ বেড়ে যাওয়া গরু মহিষের উচ্চ মূল্য কিছুটা হলেও ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে আসে। আবার মিয়ানমার থেকে গবাদিপশু আমদানীর জন্য টেকনাফ ২ নম্বর বিজিবি’র উদ্যোগে ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় সভা করে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানিতে উৎসাহিত করা হয়। ওই সভায় দেশে গবাদিপশু পরিবহনে পথে পথে চাঁদাবাজিসহ সব বাঁধা বিপত্তি দূরীকরণের ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। এছাড়াও হঠাৎ করে মিয়ানমার থেকে গবাদি পশু আমদানি বন্ধ করে দেয়ায় বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ওপারে আমদানির জন্য বিভিন্ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে।
এপারে আনার জন্য জমা করে রাখা গবাদি পশু নিয়েও আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা চরম সংকটে পড়েছে বলে টেকনাফের কয়েকজন আমদানিকারক সংবাদকে জানিয়েছে। এদিকে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি ৬ আগষ্ট থেকে বন্ধ থাকার ঘোষণায় স্থানীয় গবাদি পশুর বাজারেও তার বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কক্সবাজারসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামে কোরবানির পশুর বাজারমূল্য আবারও ক্রেতাদের নাগালের বাইরে চলে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ একাধিক মাফিয়া চক্র অধিক মুনাফা লাভের জন্য মিয়ানমার হতে পশু আনতে ফের তৎপর রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*