এ মাসে সিনহা হত্যা মামলার রায় : প্রদীপের পদক বাতিলের দাবি  - কক্সবাজার কন্ঠ

বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২ ১২ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২২-০১-০৯ ১৪:১৩:৩৪

এ মাসে সিনহা হত্যা মামলার রায় : প্রদীপের পদক বাতিলের দাবি 

এ মাসে সিনহা হত্যা মামলার রায় : প্রদীপের পদক বাতিলের দাবি 
Spread the love

বিশেষ প্রতিবেদক  :  সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনকালে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপের রাষ্ট্রিয় পদক বাতিলের দাবি জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষ। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফরিদুল আলম জানিয়েছেন, সিনহা হত্যাকান্ড পরিকল্পিত এবং আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত করা সক্ষম হয়েছে। এই মাসের মধ্যে মামলার রায়ের ব্যাপারে আশাবাদি তিনি। রোববার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আদালতে কার্যক্রম শেষে গণমাধ্যমে তিনি এ কথা বলেন।

রোববার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীর যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনের মধ্যদিয়ে এ কার্যক্রম শুরু হয়। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীর যুক্তি উপস্থাপনের পর ৬ জন আসামীর পক্ষে ২ জন আইনজীবী তাদের যুক্তি উপস্থাপন করেন। প্রথম দফায় যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন চলছে আগামি ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত।

আসামি পক্ষের আইনজীবী রানা দাশগুপ্ত জানান, আসামীর পক্ষে আইনজীবীরা নিদোর্ষ দাবি করে বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন। এর আগে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পুলিশী কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে আদালতে আনা হয় মামলায় অভিযুক্ত ১৫ আসামীকে।

উল্লেখ্য, গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ২ টি মামলা দায়ের করে। কিন্তু ৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন শাহারিয়ার বাদি হয়ে আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করে।

মামলাটি তদন্তভার দেয়া হয় র‌্যাবকে। র‌্যাব ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালত অভিযোগ পত্র গ্রহণ করে বিচার কার্যক্রম শুরু করে। গত ২৩ আগস্ট থেকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমালের আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ এবং জেরা শুরু হয়ে ১ ডিসেম্বর শেষ হয়। যেখানে ৬৫ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন। এরপর ৬ ও ৭ ডিসেম্বর আসামিদের ৩৪২ ধারায় বক্তব্য গ্রহণ করা হয়। এর পর রোববার থেকে শুরু হল যুক্তি তর্ক উপস্থাপন।

 

আরো সংবাদ