কক্সবাজারে জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেপরোয়া ভূমিদস্যূরা - কক্সবাজার কন্ঠ

শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২২-১১-২৬ ১৪:০১:৪৮

কক্সবাজারে জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেপরোয়া ভূমিদস্যূরা

কক্সবাজারে জমি দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেপরোয়া ভূমিদস্যূরা

নিজস্ব  প্রতিবেদক :  কক্সবাজার শহরে জায়গা জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দিনদিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে ভূমিদস্যূরা। সম্প্রতি সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যূরা শহরের টেকপাড়ায় খতিয়ানভূক্ত জমি দখলে নিতে বিভিন্ন কায়দা অবলম্ভন শুরু করেছে। এ ঘটনায় দখলবাজদের বিরুদ্ধে জমির মালিক কক্সবাজার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একখানা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর এমআর মামলা ১৭৬০/২০২২ ইংরেজী। বিজ্ঞ আদালত উক্ত মামলাটি আমলে নিয়ে কাগজপত্র যাচাই-বাচাই করে দখলবাজদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করেন।

 

এ বিষয়ে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান জানান, যারা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করেছেন তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

 

কিন্তু ভূমিদস্যূরা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জমির মালিকের বসতঘরসহ বিভিন্ন স্থাপনায় ব্যাপক ভাংচুর চালায়! পরে গেল শুক্রবার ২৫ নভেম্বর বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন করেছে। যা সম্পূর্ণ সাজানো নাটক। ভূক্তভোগিদের বিরুদ্ধে ভূমিদস্যূরা প্যারাবন কেটে জমি দখল বাঁকখালী নদীতে বালু উত্তোলন শিরোনামে যে সংবাদ সংবাদকর্মীদের দিয়ে পরিবেশন করিয়েছেন তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং মনগড়া। এব্যাপারে কেউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য তারা বিশেষভাবে আহবান জানিয়েছেন।

 

জমির মালিক কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলের বাসিন্দা আলমগীর ছিদ্দিকী জানান, কক্সবাজার মৌজার বিএস ৮৬৭ নম্বর খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক আমার দাদা মখলেছুর রহমান। দাদার মৃত্যুর পর তার তৎস্বত্ব প্রাপ্ত হন আমার পিতা আবু বক্কর ছিদ্দিক। বাবার মৃত্যুর পর তৎস্বত্ব আমরা ওয়ারিশগণ প্রাপ্ত হই। পরে আমরা ওয়ারিশগণ তৎস্বত্ব দখলীয় জমি নামজারি ও জমাভাগ মামলা দায়ের করি। যার মামলা নম্বর ১৬২৯/২০১৫ ইংরেজী মূলে সৃজিত বিএস ৬৪৭৭ খতিয়ান সৃজন করা হয়। সেই থেকে আমলমতে ভোগ দখলে পর্যাপ্ত থাকায় সরকারি সেরেস্তায় খাজনা আদায় করা হচ্ছে।

 

কক্সবাজারে জমি দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেপরোয়া ভূমিদস্যূরা

 

ভুক্তভোগি আলমগীর ছিদ্দিকী আরও জানান, গোলাম সোলতানের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন, আব্দুর রহিমের ছেলে হাবিবুর রহিম আবু, মৃত জামাল উদ্দিনের ছেলে আলাউদ্দিন, মৃত জাফর আলম সিকদারের ছেলে জাকারিয়া আজাদ ও মৃত নুরুল হকের ছেলে সাইফুল হকসহ সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যূ চক্র জোরর্পূবকভাবে আমার খতিয়ানভূক্ত জমি দখলে নিতে চায়। এ নিয়ে আমি কক্সবাজার সদর থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেছি এবং লিখিতভাবে পুলিশ সুপারকে অবগত করেছি। তিনি এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কাছে আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

আরো সংবাদ