করোনা: এক লাফে ২২৩১ শনাক্ত, হার ৮.৫৩ শতাংশ - কক্সবাজার কন্ঠ

বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২ ১২ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বুধবার

প্রকাশ :  ২০২২-০১-১০ ১২:৫৭:৪৩

করোনা: এক লাফে ২২৩১ শনাক্ত, হার ৮.৫৩ শতাংশ

করোনা: এক লাফে ২২৩১ শনাক্ত, হার ৮.৫৩ শতাংশ
Spread the love

 নিউজ  ডেস্ক : মহামারী করোনাভাইরাসে এক দিনে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক ধাক্কায় প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়ে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ২৩১ জন। শনাক্তের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৫৩ শতাংশে। একইসঙ্গে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনায় এ পর্যন্ত দেশে ২৮ হাজার ১০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে; শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৯৫ হাজার ৯৩১ জনে।

গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর একদিনে এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল, সেদিন ২ হাজার ৩২৫ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। আর দুই হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল সর্বশেষ ১৪ সেপ্টেম্বর।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। গতকাল করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়। আর শনাক্ত হন ১ হাজার ৪৯১ জন। এদিন শনাক্তের হার ছিল ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

দেশে এখন সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১৬ হাজার ৭১৩ জন, যা আগের দিন ১৪ হাজার ৬৯৩ জন ছিল। গত এক সপ্তাহে দেশে মোট ৭ হাজার ২৩৪ জন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা আগের সপ্তাহে ছিল ৩ হাজার ২১৩ জন। অর্থাৎ, এক সপ্তাহে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ১২৫ দশমিক ১ শতাংশ।

আর গত সাত দিনে মারা গেছেন আরও ২৫ জন, আগের সপ্তাহে কোভিডে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ১৭ জন। অর্থাৎ, এক সপ্তাহে কোভিডে মৃত্যুর সংখ্যা ৪৭ দশমিক ১ শতাংশ বেড়েছে।

এই ২৫ জনের মধ্যে ১৪ জনেরই কোনো না কোনো ধরনের দুরারোগ্য অসংক্রামক ব্যাধি বা কোমরবিডিটি ছিল। তাদের ৮০ শতাংশ উচ্চ রক্তচাপে এবং ৮০ শতাংশ ডায়াবেটিসে ভুগছিলেন।

সরকারি হিসাবে গত এক দিনে দেশে সেরে উঠেছেন ২০৮ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত ১৫ লাখ ৫১ হাজার ১১৩ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬ হাজার ৮১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ২৬ হাজার ১৪৩টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৫৩ শতাংশ। মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া তিনজনই পুরুষ। ঢাকায় ২ জন এবং রাজশাহীতে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি বিভাগগুলোতে কোনো মৃত্যু হয়নি।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। গেল বছরের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

আরো সংবাদ