চলাচলের সড়ক বন্ধ! ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের জমিতে থাবা - কক্সবাজার কন্ঠ

শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২২-১১-২৭ ১৫:২৬:৪৮

চলাচলের সড়ক বন্ধ! ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের জমিতে থাবা

চলাচলের সড়ক বন্ধ! ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের জমিতে থাবা

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার সদরের খুরুশকুল ব্রীজ সংলগ্ন রাস্তার পূর্ব-পশ্চিম পাশের্^ ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের জমির সামনে খন্ড খন্ড দোকান নির্মাণ করছেন দখলবাজরা। এ নিয়ে মের্সাস ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজ সংশ্লিষ্ট একাধিক দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কক্সবাজার প্রতিনিধি মোহাম্মদ রফিক।

স্থানীয়রা জানান, খুরুশকুল ব্রীজ সংলগ্ন রাস্তার পূর্ব-পশ্চিম পাশের্^ সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে কিছু দখলবাজ দোকান নির্মাণ অব্যাহত রেখেছেন। পাশাপাশি ব্যায়ামাগারের নামে ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের প্রধান প্রবেশপথ বন্ধ করে দিয়েছে দখলবাজরা। শুধু তাই নয়; খুরুশকুল ব্রীজ সংলগ্ন সড়কের ফুতপাত দখল করায় প্রতিনিয়ত যানজট ও দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে সাধারণ পথচারিরা। অপরদিকে ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের প্রবেশ মুখ বন্ধ করে তারা কথিত ব্যায়ামাগার তৈরি করে জায়গা দখলের প্রতিযোগিতায় নেমেছেন।

জানাগেছে, কক্সবাজার মৌজার ১৮ নম্বর খতিয়ানের মালিক মৎস্য উন্নয়ন সংস্থা। ওই খতিয়ান থেকে মের্সাস ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজ ৭ ও ৮ নম্বর প্লট ৯৯ বছরের জন্য লীজ নেন। এ থেকে ওই ৭ ও ৮ নম্বর প্লটের মালিক ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজ। এ জমির জন্য কোম্পানীর পক্ষ থেকে খাজনা প্রদানসহ অন্যান্য বিবিধ কাজ কর্ম অব্যাহত রয়েছে। দখলবাজদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন, আবুল কাশেম, ডালিম, মাহাবুবুর রহমান, মমতাজুল হক, মাসুদ রানাসহ ডজনখানিক।

ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের কক্সবাজার প্রতিনিধি মোহাম্মদ রফিক জানান, তার কোম্পানীর জায়গা একটি সংঘবদ্ধ দখলবাজ চক্র নানা কৌশলে দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। বিষয়টি তিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কিছু ব্যক্তিদের অবগত করলে তারা তাকে আইনের আশ্রয় নিতে পরার্মশ দেন।

তিনি আরও জানান বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে পূর্বেও একাধিকবার প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট দপ্তর এ বিষয়ে কোনোভাবে এগিয়ে আসে নাই। বর্তমানে প্রধান প্রবেশপথ বন্ধ করায় চলাচল করাও সম্ভব হচ্ছে না। ইষ্ট এশিয়া এন্টারপ্রাইজের পক্ষ প্রতিনিধি মোহাম্মদ রফিক দ্রæত প্রবেশ পথ ওপেন করে সরকারি সড়কের জায়াগায় গড়ে উঠা দোকানপাট ও ব্যায়ামগার উচ্ছেদের জন্য প্রশাসনের কাছে আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

আরো সংবাদ