পর্যটন শহর কক্সবাজারে বাড়ছে এইডস রোগীর সংখ্যা - কক্সবাজার কন্ঠ

শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শনিবার

প্রকাশ :  ২০২২-১২-০১ ১৪:০১:৩৪

পর্যটন শহর কক্সবাজারে বাড়ছে এইডস রোগীর সংখ্যা

পর্যটন শহর কক্সবাজারে বাড়ছে এইডস রোগীর সংখ্যা

নিজস্ব  প্রতিনিধি :  পর্যটন শহর কক্সবাজারে দিনদিন বাড়ছে এইডস রোগীর সংখ্যা। তবে আক্রান্তদের মধ্যে বেশীর ভাগই রোহিঙ্গা নাগরিক। কক্সবাজার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২২ সালের অক্টোবর পর্যন্ত এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ৪৫ জন।

তারমধ্য ৮৪৪ জন রোহিঙ্গা নাগরিক বাকি ২০১ জন বাংলাদেশি নাগরিক। শিশুরাও বাদ পড়েনি এই ভাইরাস থেকে। ৬৬ জন শিশু আক্রান্ত হয়েছে এ ভাইরাসে। চলতি বছরের অক্টোবর মাসেই আক্রান্ত হয়েছে ১ জন বাংলাদেশি ও ২৩ জন রোহিঙ্গাসহ ২৪ জন রোগী। ২০১৫ সাল থেকে চলতি বছরের অক্টোবর পর্যন্ত এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১২১ জন রোগী। মৃতদের মধ্যে বাংলাদেশের সংখ্যা কম নয়। ৫৬ জন বাংলাদেশি এবং ৬৫ জন রোহিঙ্গা মারা গেছে মরণঘাতী এ ভাইরাসে।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান বলেন, যৌন মেলামেশা, রক্তদান ও মাদকদ্রব্য নেওয়ার কারণে এইচআইভি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার প্রধান কারণ। তিনি বলেন, সারা বছরব্যাপী এইডস যেন সবার মাঝে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন করা হয়েছে।

কক্সবাজারে জেলা সদর হাসপাতাল এবং উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিনামূল্যে এইচআইভির চিকিৎসা করা হয়। কক্সবাজার সদর হাসপাতাল ল্যাবে প্রতিদিন বাড়ছে এইচআইভি ভাইরাসে টেস্টের সংখ্যা। এই ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়ার সাথে সাথে নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দিলেন কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক আশিকুর রহমান।

তবে আশঙ্কার কথা জানিয়ে এই চিকিৎসক জানান, কক্সবাজারের স্থানীয়রা সনাক্ত হওয়ার পরেও আসছে না চিকিৎসার আওতায়। যার কারণে ঝুঁকি বাড়ছে স্থানীয়দের মাঝে। এইডস রোগীদের গোপনীয়তা বজায় থাকবে জানিয়ে তিনি সবাইকে চিকিৎসার আওতায় আসার আহবান জানান।

১৯৮৮ সাল থেকে এইডসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রতিবছর বিশ্বে ১ ডিসেম্বর বিশ্ব এইডস দিবস পালন করে। এইডস এর লাগাম টেনে না ধরলে কক্সবাজার থেকে পুরো দেশে ভাইরাসটি ছড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরো সংবাদ