বড় ভাইকে মারধর করে ২ বছরের সাজা পেলো ছোটো ভাই - কক্সবাজার কন্ঠ

বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বৃহস্পতিবার

প্রকাশ :  ২০২২-১১-১০ ১২:৫৪:৩৫

বড় ভাইকে মারধর করে ২ বছরের সাজা পেলো ছোটো ভাই

বড় ভাইকে মারধর করে ২ বছরের সাজা পেলো ছোটো ভাই
সংবাদটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের  রামুতে পৈত্রিক সম্পত্তি লুট করে ভাগিয়ে নিতে বড় ভাইয়ের উপর পরিকল্পিত হামলা চালিয়ে আঘাত করার অভিযোগে ছোটো ভাইকে দুই বছরের সাজা দিয়েছে সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৬, কক্সবাজার।

একই মামলায় অভিযুক্ত আরও দুইজন আসামী পেয়েছেন খালাস। সাজাপ্রাপ্ত আসামী হলেন, রামু উপজেলাধীন কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ার ঘোনার লামারপাড়া এলাকার মোহাম্মদ হাছানে পুত্র মো. আনাছ প্রকাশ ছোটন (২৫)।

গত ৮ নভেম্বর মঙ্গলবার পূর্ব নিধারিত দিনে সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-০৬ এর বিজ্ঞ বিচারক এহসানুল হক উক্ত রায় দেন। রায়ে আসামীকে দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড; অনাদায়ে আরও ২ মাসের কারাদন্ড ঘোষণা করেন।

আসামিকে ভিডাব্লিউ মূলে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন আদালত। তবে উক্ত রায় সংশ্লিষ্ট ঘটনায় প্রত্যক্ষভাবে জড়িত দুই আসামীকে খালাস দেওয়ায় কিঞ্চিত অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে মামলাটির বাদী ওমর ফারুক।

জানা যায়- গত বছরের (২০২১ সালের) ২৬ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় রামুস্থ বাদীর নিজ বাড়িতে ছোটো ভাই আনাছ ও তার অপরাপর সহযোগীরা ওমর ফারুকের উপর পরিকল্পিত হামলা চালায়। হামলায় গুরুতর আহত হয়ে আইনী প্রতিকার পেতে ওমর ফারুক আদালতের দ্বারস্থ হয়ে ৫ অক্টোবর একটি মামলা দায়ের করেন। যার সি.আর নাম্বার ২৭৮/২১ (রামু)।

আদালত মামলাটির তদন্ত ভার দেন পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)কে। পিবিআই’র উক্ত তদন্ত রিপোর্ট পর্যালোচনা করে চার্জ গঠন শেষে সাক্ষীদের সাক্ষ্য ও যুক্তিতর্কের পর গতকাল ৮ নভেম্বর মঙ্গলবার এই রায় দেন বিজ্ঞ আদালত।

বাদী ওমর ফারুক জানান, আমার পিতার দুই স্ত্রী। আমি বড় মায়ে সন্তান। আসামী আমার ছোটো মায়ের সন্তান তথা আমার আপন ভাই হয়। এলাকায় স্থানীয় প্রভাবশালী একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে আসামী আনাছ, ছোটো মা রেহেনা আক্তার ও ছোটো মায়ের ভাই মোক্তার আহমদের পুত্র জসিম উদ্দিন নানা কূটকৌশলে আমার পিতা হাজী মো. হাছনের বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি একক ভাবে হাতিয়ে নিয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হলে সংসারে বিরোধ ও কলহ দেখা দেয়।

অন্যদিকে ছোটো মায়ের সন্তানেরা আমার পিতার আরও সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে প্রকাশ্যে হাকাবকা শুরু করে। বিষয়টি নিয়ে তৎপর হলে ছোটো মায়ের সন্তান আনাছ ও উল্লেখিত অপরাপর আসামীরা একজোট হয়ে আমার উপর পরিকল্পিত ভাবে হামলা চালায়।

আইনী প্রতিকার চেয়ে আদালতে মামলা করলে বিজ্ঞ আদালত প্রধান আসামীকে দুই বছরের সাজা দিয়েছে। এতে আমি বিজ্ঞ আদালতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তবে ঘটনার সাথে জড়িত অপরাপর আসামী রেহেনা আক্তার ও তার ভাই জসিম উদ্দিনের ব্যাপারে মামলাটির তদন্তকারী সংস্থা পিবিআই স্পষ্ট অপরাধের প্রমাণ পেয়েছে বলে উল্লেখ করেছে।

তার সত্বেও এই দুই আসামীকে খালাস দেওয়ায় আমি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছি বলে মনে করছি।


সংবাদটি শেয়ার করুন
 
 0   
  
      

আরো সংবাদ