শৈশবের সোনালী অতীত মনে করিয়ে দিলো বন্ধুদের ফুটবল যুদ্ধ - কক্সবাজার কন্ঠ

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২০-১১-০৩ ১৫:১৭:৫৯

শৈশবের সোনালী অতীত মনে করিয়ে দিলো বন্ধুদের ফুটবল যুদ্ধ

শৈশবের সোনালী অতীত মনে করিয়ে দিলো বন্ধুদের ফুটবল যুদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক : সময়ের নিরন্তর বয়ে চলার সাথে তাল মিলিয়েছে প্রযুক্তির আধুনিকায়ন। প্রতিনিয়তই নতুন নতুন আকর্ষণীয় উদ্ভাবন প্রভাবিত করছে মানুষের দৈনন্দিন জীবনকে। প্রযুক্তি জীবনকে অনেকাংশে গতিশীল করলেও বাড়িয়েছে সীমাবদ্ধতা। ঠিক যেমন বন্ধুদের সাথে মাঠে ফুটবল খেলার আনন্দটুকু আজ হাতের মুঠোই থাকা চারকোনা স্ক্রিনে বন্দি। একটা সময় ছিল যখন আমাদের মতো একজন কিশোর তার বন্ধুদের সাথে ফুটবল খেলতে নিয়মিত মাঠে যেত। বন্ধুরা একসাথে অনেক হইচই করে মাঠে খেলা করত। উদাহরণটি মানুষের প্রযুক্তিনির্ভরতার আগের সময়কে নিয়ে। এমন অনেক খেলা আছে যেগুলো মানুষের শারীরিক চর্চা আর ব্যায়ামের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

কথাগুলো ফাইনাল খেলার চ্যাম্পিয়ন ট্রপি বিতরণের সময় স্মৃতি চারণ করেন সাবেক ফুটবল যোদ্ধারা।
সোনালী অতীত ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২০ আয়োজিত খেলা পরিণত হয়েছিল সাবেক ফুটবলারদের মিলনমেলায়। খেলাটা মূখ্য নয়, এ আয়োজনটা সবাইকে এক জায়গায় করবেন, অনেকদিন পর অনেকের সঙ্গে দেখা হবে- এমন টানেই শৈশবের সোনালী দিনের বিকেলে অনেকেই এসেছিলেন ১ নং ওয়ার্ডের বৃহত্তর কুতুবদিয়া পাড়ার বজল মার্কেট সংলগ্ন খেলার মাঠে ।

২৮ অক্টোবর থেকে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন রংয়ের জার্সিতে জ্বলজ্বল করছিল সাবেক খেলোয়াড়দের মুখ। সোনালী বিকেলটা ফুটবলপ্রেমীদের ফিরিয়ে নিয়েছিল অতীতে, মনে করিয়ে দিলো ফুটবলের সোনালী দিনের কথা।

৮ দলে ভাগ হয়ে খেললেন সাবেকরা। সাবেক কৃতি খেলোয়াড় মোঃ শহিদুল্লাহর উদ্যোগে যেনো এ আয়োজনটা অনুর্ধ ৩৫-৭০ বছর এলাকার সাবেক খেলোয়াড়দের বন্ধুত্বের সোনালী আয়োজন।

কুতুবদিয়াপাড়া ক্রীড়া পরিষদের সভাপতি কামরুল ইসলামের পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সাবেক খেলোয়াড় ও টুর্নামেন্ট কমিটির সদস্য সচিব মোঃ শহিদুল্লাহর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন সিকদার।
খেলা উদ্বোধন ও ট্রপি বিতরণ করেন টুর্নামেন্ট আহবায়ক ইয়াহিয়া খান।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি আতিকুল্লাহ কোং।
গন্ধরাজ ও গোলাপ দলের শিরোপা লড়াইয়ে ১নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি আতিকুল্লাহ কোং এর গোলাপ দল বিজয়ী হয়।

উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক মোস্তফা সরওয়ার, শাহাদাত হোসেন মুন্না, আবুল বশর বহদ্দার, নুরুল বশর বাদশা, সরওয়ার আলম, আতাউর রহমান কায়সার, মোস্তাক আহমদ, জানে আলম জানু কোং, এম আতিকুর রহমান ও ওমর ফারুক বাদশা।
রাতে সাবেক খেলোয়াড়দের জন্য প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়।
সপ্তাহব্যাপী টুর্নামেন্টে জবা দলের অধিনায়ক সিরাজুল করিম, শাপলা দলের অধিনায়ক মোঃ শহিদুল্লাহ, কাশফুল দলের অধিনায়ক আবদুর রহিম রব্বানী, সুর্যমুখি দলের অধিনায়ক মোস্তাক আহমদ, কদমফুলের অধিনায়ক জাফর আলম, গন্ধরাজের অধিনায়ক জিল্লুল করিম, গোলাপ দলের অধিনায়ক আবুল কাশেম বাসিন্ন্য ও রজনীগন্ধার অধিনায়ক সেলিম উদ্দিন কোং’র নেতৃত্বে ৮ দল খেলায় অংশগ্রহণ করে।
খেলায় রেফারির দায়িত্ব পালন করেন জেলা লীগ ও জাতীয় লীগের খেলোয়াড় মনসুর আলম। পড়ন্ত বিকেলে সাবেক তারকাদের আলোয় আলোকিত করে এ আয়োজন। হাজার হাজার দর্শকে ভরপুর বয়স্কদের এ টুর্নামেন্ট। উপভোগ্য ও বিনোদনের ব্যতিক্রম এক আয়োজন।

আরো সংবাদ