শ্রমিক লীগের কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল : পূর্বের কমিটি বহাল ঘোষণা - কক্সবাজার কন্ঠ

বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২ ১২ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ :  ২০২২-০১-০১ ১১:২৬:৩৪

শ্রমিক লীগের কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল : পূর্বের কমিটি বহাল ঘোষণা

শ্রমিক লীগের কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল : পূর্বের কমিটি বহাল ঘোষণা
Spread the love

বার্তা পরিবেশক  : কয়েকদিন ধরে কক্সবাজারে রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক আলোচিত নবঘোষিত জেলা শ্রমিক লীগে কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল করা হয়েছে। সব জল্পনা-কল্পনা শেষে অবশেষে তাই সত্য হলো। এই কমিটি বাতিল করে পূর্বের মরহুম জহিরুল ইসলাম সিকদার ও শফিউল্লাহ আনসারীর কমিটি বহাল রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নান স্বাক্ষরিত এক নোটিশ সূত্রে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

নোটিশে কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল ঘোষণা করে পূর্বের কমিটি বহাল রাখা ঘোষণা দেয়া হয়েছে। নোটিশে জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে কার্যক্রম চালু রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়েছে, কক্সবাজার জেলা শাখায় একটি চলমান কার্যকরী কমিটি থাকা অবস্থায় গত ১৭/১২/২০২১ইং তরিখ কেন্দ্রী সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের দুইটি সভার সিদ্ধান্ত অগাহ্য না করে একক স্বাক্ষরে অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিত লােকদের দিয়ে যে কমিটি প্রদান করেছে তা সংগঠনের গঠনতন্ত্র বিরোধী, অসাংগঠনিক তথা অবৈধ।

জাতীয় শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্রের ১৫ (ক) ধারা মোতাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতির সাথে আলোচনা ছাড়া ২৪ নং ধারা উল্লেখ পূর্বক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক একক স্বাক্ষরে কক্সবাজার জেলা শাখা কমিটি প্রদান করে গঠনতন্ত্র বিরোধী কাজ করেছেন এবং গঠনতন্ত্রের অপব্যবহারে লিপ্ত হয়েছেন। ২৪ নং ধারার মতে গঠনতন্ত্র উল্লেখ নাই সেই সব বিষয়ে সমস্যা সমাধানের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে।

গঠনতন্ত্রের ১৩ ধারা মতে প্রতি দুই বৎছর পর কাউন্সিলের গোপন ব্যালটে কর্মকর্তাগণ নির্বাচিত হবেন। কক্সবাজার জেলা শাখায় সম্মেলনের জন্য পূর্ণ নোটিশ না দিয়ে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক কমিটি প্রদান করায় উক্ত আহবায়ক কমিটি সম্পর্ণ অবৈধ। বিধায় কক্সবাজার জেলা শাখার কাউন্সিল অধিবেশন না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় শ্রমিক লীগের কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি মরহুম জহিরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারীর নেতৃত্বাধীন কমিটি বহাল থাকবে।

উল্লেখ্য, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার সম্প্রতি সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন। তার মৃত্যুর পর থেকে দলের একটি জহিরুল ইসলাম সিকদার ও শফিউল্লাহ আনসারীর নেতৃত্বাধীন কমিটি বাতিল করার জন্য উঠেপড়ে লাগে। তারই অংশ হিসেবে সাবেক যুবদল নেতা শাহেদুল ইসলামকে আহবায়ক করে সম্প্রতি কথিত আহবায়ক অনুমোদন করা হয়।

এই কমিটি ঘোষণা করে কক্সবাজারের শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। এরই প্রেক্ষাপটে গত ২২ ডিসেম্বর কক্সবাজারের আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের উপস্থিতিতে রাজধানী ঢাকায় দলীয় কার্যালয়ে এক বৈঠকে এই নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয় যে, শ্রমিক লীগ কক্সবাজার জেলা শাখার প্যাডে কেন্দ্রীয় সভাপতির স্বাক্ষরবিহীন শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষরে  কক্সবাজার জেলা শ্রমিকলীগের যে আহবায়ক কমিটি দেওয়া হয়েছে তা বাতিল  করে পূর্বের নির্বাচিত কমিটির ১নম্বর সহ-সভাপতিকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করে  শ্রমিক লীগ কক্সবাজার জেলা শাখা পূর্বের মতো সকল সাংগঠনিক দায়িত্ব পরিচালনা করবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক  মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাংসদ জাফর আলম, সাবেক সাংসদ এথিন রাখাইন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দীন আহমদ (সিআইপি)।  অবশেষে সেই নির্দেশ বাস্তবায়ন হওয়ায় কথিত আহবায়ক কমিটি বাতিল হয়ে গেলো। সূত্র দৈনিক কক্সবাজার।

আরো সংবাদ